চুক্তিতে না রাখতে মাশরাফির অনুরোধ

mash.jpeg

ক্রিকবিডি২৪.কম রিপোর্ট

নিজে থেকেই সরে গেলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে তার নাম না রাখার অনুরোধ করেছেন ওয়ানডে দলের অধিনায়ক। যদিও গত জুলাইয়ে বিশ্বকাপের ম্যাচ খেলার পর থেকেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে আছেন তিনি। এ অবস্থায় মিরপুরের শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের বিসিবি ভবনে রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান জানালেন নিজের ইচ্ছায় চুক্তি থেকে সরে গেলেন মাশরাফি।

গত বিশ্বকাপের আগে আয়ারল্যান্ড সফরে হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়েছিলেন মাশরাফি। তারপর বিশ্বকাপেও খেলেন চোট নিয়ে। দীর্ঘ পাঁচ মাস পর বঙ্গবন্ধু বিপিএল দিয়ে মাঠে ফেরেন বাংলাদেশের সফলতম ওয়ানডে অধিনায়ক।

এ অবস্থায় গুঞ্জন ম্যাশ কি ওয়ানডেতে ফের ফিরবেন? খেলবেন টাইগারদের আগামী সিরিজে?

তার আগে মাশরাফির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে না থাকা প্রসঙ্গে নাজমুল হাসান পাপন বলেন,‘ ক্রিকেটারদের কেন্দ্রীয় চুক্তির বিষয়টি এখনো চুড়ান্ত হয়নি। আমাদের কাছে তালিকা এসেছিল আমরা সেটাকে আরেকটু পরিমার্জন করবো। নতুন বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় ভাল খেলছে। তাদের চুক্তিতে আনা যায় কিনা- সেটা জানিয়ে আমরা এই তালিকা নতুন করে তৈরি করতে বলেছি। তবে হ্যাঁ, এই সভায় আমরা বসার আগে মাশরাফি আমার সঙ্গে কথা বলেছে। সে জানিয়েছে-তাকে যেন বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে যাতে না রাখা হয়। কারণ হিসেবে মাশরাফি বলেছে- তাকে যদি চুক্তিতে না রাখা হয় তাহলে তার জায়গায় নতুন কোন খেলোয়াড় সুযোগ পাবে। আমরা তার অনুরোধ মেনে নিয়েছে। অর্থাৎ এটা পরিস্কার যে মাশরাফি বিসিবির নতুন কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকছে না।’

একইসঙ্গে মাশরাফির অবসর প্রসঙ্গে পাপন রোববার জানালেন, ‘ওকে একবার আমরা অফার (অবসর নেয়ার বিষয়ে) করেছিলাম। বিশ্বকাপের পরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একটা ওয়ানডে ম্যাচের আয়োজন করে তাকে বিদায় জানানোর পরিকল্পনাও করা হয়েছিল। জিম্বাবুয়ের সঙ্গে সেই ম্যাচ নিয়ে বিসিবি আলোচনাও করেছিল। আর এই বিষয়ে মাশরাফির সঙ্গে বিশ্বকাপের সময়েই আমার লন্ডনেই কথা হয়েছিল। তবে যাই হোক পরে ও (মাশরাফি) আর রাজি হলো না। আমাকে বলল- এই বিপিএল পর্যন্ত দেখতে চায়। তারপর সিদ্ধান্ত নেবে। আর এখন আমি মিডিয়ায় দেখতে পাচ্ছি সে বলেছে-তার নাকি ঘটা করে বিদায় নেয়ার কোন ইচ্ছেই নেই। আমাকে অবশ্য এই বিষয়ে সে এখনো কিছু বলেনি। আমি পত্র পত্রিকায় দেখেছি তার মন্তব্য। দেখা যাক কি হয়? আমরা তো চাইবেই তাকে খুব ভালভাবে একটা বিদায় দেয়ার। সেই আয়োজনটা আমরা এমন করতে চাই যা বাংলাদেশের আর কেউ কখনো পেয়েছে বা পাবে! তার বিদায় নিয়ে এটাই আমাদের ইচ্ছে। এখন যে যদি চায় তাহলে হবে। আর না চাইলে কিছু করার নেই’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *