পাকিস্তানকে ইনিংসে হারিয়ে রেকর্ড অজিদের

australia.jpg

ক্রিকবিডি২৪.কম রিপোর্ট

নাটকীয় কিছুই হয়নি। এমন কী বৃষ্টিও পাশে দাঁড়ায়নি পাকিস্তানের। অ্যাডিলেডে দিবা-রাত্রির টেস্টে অনায়াস জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ল অস্ট্রেলিয়া। পাকিস্তানকে ইনিংস ও ৪৮ রানে হারাল স্বাগতিকরা। এই জয়ে আজহার আলিদের হোয়াইটওয়াশ করল তারা।

গোলাপি বলের টেস্টে সোমবার নাথান লায়নের ঘূর্ণি বলের সামনে তছনছ প্রতিপক্ষ। দল অলআউট ২৩৯ রানে। এই সাফল্যে দিবা-রাত্রির টেস্টে টানা ৬ ম্যাচ জেতার রেকর্ড গড়ল অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট দল। পাকিস্তান এনিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় টানা ১৪ টেস্টে হারল।

সিরিজে ব্রিসবেনে প্রথম টেস্টে অজিরা জিতেছিল ইনিংস ও ৫ রানে। এরপর দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টেও ইনিংসে হার।

পুরো সিরিজ জুড়েই অস্ট্রেলিয়ান পেসে ধুঁকেছে পাকিস্তান। অ্যাডিলেড টেস্টে সফরকারীরা নীল হয়েছে নাথান লায়নের স্পিন বিশে। অনুমিতভাবেই প্রথম টেস্টের মতো এ টেস্টেও ইনিংস ব্যবধানে হেরেছে পাকিস্তান। শুধু তা-ই নয় দুই টেস্টের সিরিজে হোয়াইটওয়াশও হয়েছে আজহার আলির দল।

ইনিংস হার এড়াতে গতকাল পাকিস্তানের প্রয়োজন ছিল ২৪৮ রান। সে লক্ষ্যে দিনের শুরুতে বেশ খেলছিলেন পাকিস্তানের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান শান মাসুদ ও আসাদ শফিক। প্রথম ঘণ্টা নির্বিঘ্নে পার করে দেন। কিন্তু ১০৩ রানের জুটিটা ভেঙেছে বিরতির খানিক পরেই। শান মাসুদকে (৬৮) ফিরিয়ে দেন লায়ন। পরে এ স্পিনার আসাদ শফিককে (৫৭) লেগ স্লিপে ওয়ার্নারের ক্যাচ বানিয়ে ফেরান।

লাঞ্চের পর ৪৭ রানে ষষ্ঠ উইকেট জুটি পাকিস্তানকে দুই শ পার করে দিয়েছিল। এর পর লায়ন একাই পাকিস্তানকে ধসিয়ে দেন। দ্রুত সময়ের তুলে নেন ইফতিখার (২৭), ইয়াসির (১৩) ও শাহীন শাহ আফ্রিদিকে (১)। নতুন বল নেওয়ার দুই ওভারের মধ্যেই পাকিস্তান শেষ দুই উইকেট হারিয়ে ফেলেছে। লায়ন নেন ৫ উইকেট।

প্রথম ইনিংসের দুর্দান্ত ৩৩৫ রানে ম্যাচ সেরা হয়েছেন ওয়ার্নার। এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের হাতেই আবার উঠেছে সিরিজ সেরার পুরস্কার।

আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে পয়েন্ট তালিকায় দুইয়ে ওঠে এসেছে অস্ট্রেলিয়া। ৭ ম্যাচে অর্জন ১৭৬ পয়েন্ট। সমান ম্যাচে ভারত ৩৬০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে। কোন পয়েন্ট না পেয়ে পাকিস্তান ৯ দলের মধ্যে সপ্তমস্থানে রয়েছে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস: ৫৮৯/৩ (ডি.)
পাকিস্তান ১ম ইনিংস: ৩০২/১০
পাকিস্তান ২য় ইনিংস: (ফলো অনের পর) ৮২ ওভারে ২৩৯ (আগের দিন ৩৯/৩) (মাসুদ ৬৮, শফিক ৫৭, ইফতিখার ২৭, রিজওয়ান ৪৫, ইয়াসির ১৩, আফ্রিদি ১, আব্বাস ১, মুসা ৪*; স্টার্ক ১৬-৩-৪৭-১, হেইজেলউড ২৩-৪-৬৩-৩, কামিন্স ১৫-৪-৪৫-০, লায়ন ২৫-৭-৬৯-৫, লাবুশেন ৩-০-৯-০)।
ফল: অস্ট্রেলিয়া ইনিংস ও ৪৮ রানে জয়ী
ম্যাচ ও সিরিজসেরা: ডেভিড ওয়ার্নার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *