আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর হাশিম আমলার

hashim amla

ক্রিকবিডি২৪.কম রিপোর্ট

ভদ্র এক ক্রিকেটার তিনি। ধর্মপ্রাণ। ইসলাম ধর্মের রীতি-নীতি মেনেই কাটাচ্ছেন জীবন। ক্রিকেট মাঠেও তাকে আলাদা করেই চেনা যেতো! হ্যাঁ যেতো বলাটাই যৌক্তিক। কারণ হঠাৎ করেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে গুডবাই বলে দিয়েছেন হাশিম আমলা। ৩৬ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার তুলে রাখলেন তার প্রিয় জার্সি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নিতে গিয়ে বলেন, ‘সমস্ত প্রশংসা, ধন্যবাদ পরম করুণাময়ের প্রতি।  সমস্ত প্রশংসা আর ধন্যবাদ পরম করুণাময়ের প্রতি, যিনি আমাকে প্রোটিয়াদের হয়ে খেলার সুযোগ করে দিয়েছেন। এখানে খেলতে পারাটা আনন্দের এবং ভাগ্যের। চলার পথে আমি অনেক কিছু শিখেছি। অসংখ্য বন্ধু হয়েছে। একে অন্যের সঙ্গে ভালোবাসা ভাগাভাগি করেছি।’
এই কিংবদন্তি আরো বলেন, ‘বাবা-মায়ের কাছে ভালোবাসা আর সমর্থন, যে দোয়া পেয়েছি তার জন্য কৃতজ্ঞ। আমার পরিবার, বন্ধু-বান্ধব, এজেন্ট, দল এবং সতীর্থ সকলের কাছেই কৃতজ্ঞ আমি। ’ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেও ঘরোয়া ক্রিকেটে আরও কিছুদিন খেলা চালিয়ে যাবেন তিনি।

২০০৪ সালে ভারতের বিপক্ষে ইডেন গার্ডেন্সে টেস্ট অভিষেক আমলার। ১৫ বছরের ক্যারিয়ারে প্রোটিয়াদের হয়ে ১২৪টি টেস্ট খেলে ২৮ সেঞ্চুরিতে করেন ৯,২৮২ রান।  গড় ৪৬.২৪! ক্যারিয়ারসেরা ইনিংস ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১২ সালে, ৩১১ রান।

ওয়ানডে ক্রিকেটে অভিষেক ২০০৮ সালে। ১৮১ ওয়ানডে খেলে করেন ৮,১১৩ রান রান। গড় ৪৯.৪৬। শতরান ২৭টি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অপরাজিত ৮০ রান হয়ে থাকবে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে এই ডানহাতি ব্যাটসম্যানেরআন্তর্জাতিক শেষ ইনিংস।

গত বিশ্বকাপ চলার সময় বাবার অসুস্থতায় মনোযোগটা ঠিক মতো দিতে পারেন নি ক্রিকেটে।  সাত ইনিংস মিলিয়ে করেন ২০৩ রান। এবার বিদায় বললেন তিনি। তাকে নিয়ে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার প্রধান নির্বাহী থাবাং মোরে বলেন, ‘নম্রতা সবসময়ই তাকে উঁচুতে রাখবে। একজন মানুষ কীভাবে আদর্শ জীবন-যাপন করতে পারে এটি আমি আমলাকে দেখেই বুঝেছি। এবার আসুন সবাই মিলে তার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করি।’

প্রত্যুত্তর

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>